আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এমন ব্যক্তির সাথে কিভাবে কথা বলবেন

আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছেন এমন ব্যক্তির প্রয়োজন আপনার সহযোগিতার। এই কঠিন সময়ে ওনার পাশে দাঁড়ান এবং ওনাকে আশ্বস্ত করুন যে উনি সুরক্ষিত আছেন
আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এমন ব্যক্তির সাথে কিভাবে কথা বলবেন।
 
আপনার পরিচিত বা প্রিয়জন আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন, একথা জেনে আপনার খুব কষ্ট হতে পারে এবং আপনি ভ্রান্তি বোধ করতে পারেন। কিছু উপায় জানান হল যাতে আপনি ওনাকে ভালো হয়ে উঠতে সাহায্য করতে পারেন।
দেরি না করে সাথে সাথে চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।
যখন আপনি জানতে পারবেন যে কেউ আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছে, তখন সাথে সাথে এম্বুলেন্স ডেকে পাঠান বা ওনাকে তাড়াতাড়ি হাসপাতালে নিয়ে যান। ওনাকে বাঁচিয়ে রাখাটাই আপনার প্রধান দায়িত্ব।
 
ঘটনাটা বা ওনাকে বিচার করার চেষ্টা করবেন না, রাগ দেখাবেন না বা কি হয়েছে সেটা জানার জন্য অনেক প্রশ্ন করবেন না
যিনি নিজের জীবননাশ করার চেষ্টা করেছেন, তিনি তো মানসিক ভাবে এমনিতেই বিচলিত আর বিভ্রান্ত হয়ে রয়েছেনসেই পরিস্থিতিতে ওনাকে বিচার করার, বা রাগ বা হতাশা দেখানোর চেষ্টা করবেন না। ঐ সময় ওনার প্রয়োজন আপনার সহযোগিতার, এবং হয়তো উনি প্রস্তুত নন ঘটনাটি আলোচনা করার জন্য।
 
ওনাকে আশ্বস্ত করুন যে আপনি ওনার পাশে রয়েছেন
আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছেন এমন ব্যক্তির প্রয়োজন আপনার সহযোগিতার। এই কঠিন সময়ে ওনার পাশে দাঁড়ান এবং ওনাকে আশ্বস্ত করুন যে উনি সুরক্ষিত আছেন এখন আপনি ওনাকে কোনো শর্ত ছাড়াই সহযোগিতা করবেন।
যদি আপনি মনে করেন যে উনি আবার আত্মহত্যা করার চেষ্টা করতে পারেন, তাহলে দূর থেকে ওনার ওপর নজর রাখুন।
যদি আপনার মনে হয় যে উনি আবার আত্মহত্যা করার চেষ্টা করতে পারেন তাহলে ওনাকে একা থাকতে দেবেন না। বিরক্ত না করেও পরিচর্যা করা সম্ভব।  
ওনাকে আস্তে আস্তে উৎসাহিত করুন যাতে উনি মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ বা কাউন্সেলারের সাথে কথা বলতে রাজি হন।
যখন উনি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবেন তখন ওনাকে মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সাহায্য নেওয়ার প্রস্তাব দিন। আপনি কাউন্সেলার, সাইকোলোগিস্ট বা সাইকিয়াত্রিস্টের সাথে যোগাযোগ করুন।
এমন ব্যক্তিদের নামের লিস্ট বানান যাদের সাথে উনি ওই মুশকিলের সময় কথা বলতে পারেন।
 
ওনাকে সাহায্য করুন এমন ব্যক্তিদের নামের লিস্ট বানাতে যারা ওই সময়, যখন উনি নিরাশা বা দুর্বল অনুভব করছেন, কথা বলতে পারবেন। এই লিস্টে তাদের নাম থাকতে পারে যে পরিবারের সদস্য আর বন্ধুদের উনি বিশ্বাস করেন, এবং এমন একজন কাউন্সেলারের নাম্বার যিনি বিপদকালে ফোনে কথা বলতে পারবেন। মানসিক রোগ নিয়ে কাজ করেন এমন ব্যক্তি বা সুইসাইড হেল্পলাইনের সাথেও যোগাযোগ করতে পারেন।   
ওই ঘটনার কথা মনে না করার জন্য ওনাকে অন্য কাজে ব্যস্ত রাখুন।
 
এই ধরনের ঘটনা ব্যক্তির জীবন বা তার ব্যক্তিত্বর সম্পূর্ণ পরিমাপ নয়। এক ঘটনার থেকে দূরে সরার জন্য ওনাকে স্বাস্থ্যকর দৈনিক জীবনযাপনের বিষয়ে উৎসাহিত করুন, যার মধ্যে থাকবে কাজ, পরিবার, বন্ধুবান্ধব, শারীরিক ব্যায়াম, ইত্যাদি।
 
যদি আপনার নিজের ওই ঘটনা মেনে নিতে অসুবিধা হয়, তাহলে আপনি কিছুদিনের জন্য এই পরিস্থিতি থেকে দূরে সরে যান, বা অভিজ্ঞ কাউন্সেলারের সাথে কথা বলুন।
 
মানসিক বা আবেগজনিত সংঘাতের মধ্যে থাকা ব্যক্তির সাথে সব সময় যোগাযোগ রাখা আপনার পক্ষে খুবই ক্লান্তিকর হয়ে উঠতে পারেনিজের শারীরিক আর মানসিক যত্নের বিষয়টি অবহেলা করবেন না। যদি আপনি এই ঘটনা নিয়ে বিচলিত বা চিন্তিত থাকেন, তাহলে কিছুদিনের জন্য অন্য কাউকে অয়ার দেখাশুনার দায়িত্ব দিয়ে আপনি একটু বিশ্রাম নিন, বা কাউন্সেলারের সাথে মন খুলে কথা বলুন।
 
আপনি কিভাবে এই পরিস্থিতি এড়াতে পারতেন সেই বিষয়ে চিন্তা করবেন না।
নিজেকে অপরাধী মনে করবেন না বা ভাববেন না যে আপনি নিজের বন্ধু/ আত্মীয়র আত্মহত্যার প্রচেষ্টা কি ভাবে আটকাতে পারতেন। নিজেকে রাগ, হতাশা বা দুঃখ অনুভব করার থেকে আটকাবেন না। আপনি বিশ্বাস করেন এমন কারুর সাথে কথা বলে নিজেকে হাল্কা করে নিন।

আরও পড়ুন