বিশিষ্ট

পরিচর্যা করার পরিচয়পর্ব

যখন কোনও ব্যক্তি সাময়িক বা দীর্ঘস্থায়ী শারীরিক অক্ষমতার কারণে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারে না, তখন তাকে কাছের মানুষের উপর নির্ভর করতে হয়। এই সময় শুভাকাঙ্ক্ষীদের দায়িত্ব এতটাই গুরুত্বপূর্ণ হয় যে তা একজন রোগীকে স্বাভাবিক জীবনযাপনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। হাসপাতাল বা নার্সিংহোমে চিকিৎসার পর যখন রোগী বাড়িতে ফিরে আসেন, ...

আরও পড়ুন

ভিডিও

img

যোগব্যায়াম এবং পুনর্বাসন

Photo Story

মানস ভট্টাচার্য

স্কিৎজোফ্রেনিয়ায় আক্রান্ত ছেলের পরিচর্যাকারী

আমি প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বিচলিত হয়ে পড়ি না। নিজেকে সংযত করে আমি সেই বিষয়ে মন দিই যা আমার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আমার ছেলের বয়েস ৪৫। কুড়ি বছর আগে ওর স্কিৎজোফ্রেনিয়া ধরা পড়ে। আমার স্ত্রীর মৃত্যুর পর থেকে আমি একাই ওর দেখাশুনা করি। আমার দিন যোগ আর অন্যান্য ধরণের ব্যায়াম দিয়ে শুরু হয়। আমি নিজের প্রতি যত্ন নিই আর মনকে শান্ত রাখার চেষ্টা করি যাতে আমি ভাল ভাবে ওর দেখাশুনা করতে পারি।      

গ্লোরি জোসেফ

সাইকিয়াট্রিক নার্স

আমার বরাবরই ইচ্ছে ছিল নার্স হওয়ার কিন্তু সাইকিয়াট্রিক নার্স হওয়ার কথা আলাদা করে ভাবিনী। নিমহ্যান্সে কাজ করতে এসে আমি মানসিক রোগীদের যন্ত্রণা আর নানা ধরণের সমস্যার ব্যাপারে বুঝতে শুরু করলাম। গুরুতর মানসিক রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির কাছে পরিচ্ছনতা জরুরী নাও হতে পারে; অবসাদে ভোগা রোগী হয়ত ভাবছেন “বেঁচে থেকে কি লাভ” বা “আমি আর বাঁচতে চাই না”। কেউ ওদের মনের কথা শুনবে, ওদের যত্ন করবে, শুধু এইটুকুই ওরা আশা করেন।      

ডাঃ এন জনার্‌ধন

সাইকিয়াট্রিক সামাজসেবী

মানসিক রোগীদের তাঁদের পরিবার আর সমাজ বোঝা মনে করেন। সাইকিয়াট্রিক সামাজসেবী হিসেবে আমি তাঁদের আত্মনির্ভর আর স্বাধীন হওয়ার জন্য উৎসাহিত করি। ওদের সাথে দেখা করলে একটা বৃহৎ উদ্দেশ্য খুঁজে পাই। আমি গর্বিত অনুভব করি যখন তাঁদের পরিবার আমার কাজ কে স্বীকৃতি দেন আর আমার সাথে নিশ্চিন্ত ভাবে কথা বলেন। গুরুত্বপূর্ণ কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ওঁরা আমার সাথে পরামর্শ করেন।