আপনার কোথায় সাহায্য চাওয়া উচিত?
আত্মহত্যা প্রতিরোধ

আপনার কোথায় সাহায্য চাওয়া উচিত?

উত্তরজীবী এবং মানসিক স্বাস্থ্য পেশাদারদের মতে আপনি শোকের যেই পর্যায়ে রয়েছেন সেই অনুযায়ী আপনার সাহায্যের সংস্থানকে বেছে নেওয়া উচিত

শ্রীরঞ্জিতা জেউরকর

প্রিয়জনের আত্মহত্যার ঠিক পরেই আপনার কোন বিশ্বস্ত বন্ধু অথবা পরিবারের সদস্যর সাথে কথা বলুন - এমন একজন ব্যক্তি যিনি আপনার মনের অবস্থাটা বুঝবেন এবং এই অবস্থাটা কাটিয়ে ওঠার জন্য আপনার উপরে চাপ সৃষ্টি করবেন না। আপনি মানসিক স্বাস্থ্য পরিষেবার দ্বারস্থও হতে পারেন। এই পরিষেবার মধ্যে আপনি কি রকমের মানসিক দুর্দশার মধ্যে রয়েছেন তার গভীরতা অনুযায়ী টক থেরাপি এবং সাইকিয়াট্রিক সাহায্য থাকতে পারে।

ঘটনার কয়েক মাস পরে আপনার যদি মনে হয় যে আপনি নিজের ক্ষতির সাথে এতটা বোঝাপড়া করে উঠতে পেরেছেন যে অন্যদের কষ্ট এবং ক্ষতির কথা আপনি শুনতে পারবেন তাহলে কোন সাপোর্ট গ্রুপে যোগদান করতে পারেন।

আপনার যদি মনে হয় যে আপনি বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন এবং মানিয়ে নিতে পারছেন না, তাহলে কোন হেল্পলাইনের সাথে বা কাছাকাছি কোন কাউন্সেলর অথবা থেরাপিষ্টের সাথে যোগাযোগ করুন।

এই আর্টিকেলটি প্রিয়জনের আত্মহত্যার সাথে জড়িয়ে থাকা অনুভূতি এবং সেই পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নেওয়ার শৃঙ্খলার একটি অংশ। এই শৃঙ্খলার অন্য লেখাগুলি পড়ুনঃ

· আপনার কোথায় সাহায্য চাওয়া উচিত?

· কেন-র উত্তর জরুরি কেন

· প্রিয়জনের আত্মহত্যার ঠিক পরে নিজের যত্ন নেওয়া

· মনস্তাপ কি রকমের হতে পারে

· শোক কেন জটিল আকার নিতে পারে

· পরিবার এবং বন্ধুদের সাথে শোক প্রকাশ করা

· আত্মহত্যার কারণে প্রিয়জনকে হারানোঃ অন্যদের কিভাবে সেই সংবাদ জানাবেন

শ্বেতা শ্রীনিবাসন দ্য মাইন্ড ক্ল্যান-এ একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ এবং সিস্টারস লিভিং ওয়ার্কস-এ আত্মহত্যার কারণে প্রিয়জনকে হারিয়েছেন এমন ব্যক্তিদের সাপোর্ট গ্রুপের ম্যানেজার। নয়না সাভারওয়াল উই হিয়ার ইউ -আত্মহত্যার কারণে প্রিয়জনকে হারানো ব্যক্তিদের সাপোর্ট গ্রুপের যুগ্ম-প্রতিষ্ঠাতা। এই ধারাবাহিকটি শ্বেতা এবং নয়নার থেকে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে লেখা হয়েছে।

হোয়াইট সোয়ান ফাউন্ডেশন
bengali.whiteswanfoundation.org