পরীক্ষার ভীতি কাটাতে হেল্পলাইনের সাহায্য নিতে পারো

হেল্পলাইন বলতে কী বোঝায়?

হেল্পলাইন এমন একটি ব্যবস্থা যার মাধ্যমে বিনা ব্যয়ে পরিষেবা পাওয়া যায়। সাধারণত এই ব্যবস্থা একজন মানসিকভাবে বিপর্যস্ত মানুষকে অনুভূতিগতভাবে সাহায্য করে এবং এই সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য প্রদান করে। হেল্পলাইনের মাধ্যমে যে কোনও মানুষ তার সমস্যা নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করতে পারে। এখানে কোনও সমস্যার তুল্যমূল্য বিচারের পরিবর্তে মানুষকে তার সমস্যার হাত থেকে রেহাই দেওয়ার জন্য সুপরামর্শ ও সাহায্য দান করা হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে টেলিফোনের মাধ্যমেই হেল্পলাইনের সাহায্য নেওয়া যায়। আর কিছু ক্ষেত্রে ই-মেলের মধ্য দিয়ে এই পরিষেবার সুযোগ গ্রহণ করা হয়।

কখন একজন হেল্পলাইনের সাহায্য চাইবে?

শুধুমাত্র বিপদে পড়লেই যে হেল্পলাইনের সাহায্য নেওয়া যায়, তা নয়। কোনও বিষয় সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করা এবং বাস্তব পরিস্থিতির বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পাওয়ার ক্ষেত্রেও হেল্পলাইনের সহায়তা জরুরি। কেউ তার নিজের জন্য বা পরিচিত কোনও মানুষের জন্য হেল্পলাইনের সাহায্য চাইতে পারে।

সাধারণভাবে হেল্পলাইনের কাছে মানুষের কী ধরনের প্রত্যাশা থাকে?

যখন একজন হেল্পলাইনের সাহায্য নেয়, তখন তার একজন কাউন্সেলর বা মানসিক রোগের প্রশিক্ষিত পেশাদারের সঙ্গে যোগাযোগ হয়। এই ব্যক্তির সাহায্যে সাহায্যপ্রার্থী তার মানসিক সমস্যা, যেমন— পরীক্ষা সংক্রান্ত মানসিক চাপ, আত্মবিশ্বাসের অভাবজনিত অসুবিধা প্রভৃতি বিষয় পরিষ্কারভাবে বুঝতে পারে। হেল্পলাইন সমস্যায় আক্রান্ত একজন ব্যক্তিকে সঠিক পথে এবং যথাযথ সিদ্ধান্ত নিতে উৎসাহিত করে। এই সুবিধা দেওয়ার জন্য হেল্পলাইনের একজন কাউন্সেলর সাহায্যপ্রার্থীকে কয়েকটি প্রাথমিক প্রশ্ন করতে পারে, যেমন— তার বয়স, সে কী ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে ইত্যাদি। একজন কাউন্সেলর সাহায্যপ্রার্থীর সব কথা শোনার সময়ে নিজের মতামত, ধারণা— কিছুই প্রকাশ করে না। সাহায্যপ্রার্থীর কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের উপর নির্ভর করেই হেল্পলাইন ওই ব্যক্তির সমস্যা সমাধানের জন্য সবরকম সহায়তা দান করে অথবা বিশেষজ্ঞের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য সুপারিশ করে।

হেল্পলাইন কি সাহায্যপ্রার্থীর দেওয়া তথ্য গোপন রাখে?

হেল্পলাইনের সঙ্গে কথা বলার বিষয়টি বন্ধুদের সঙ্গে কথাবার্তা বলার মতো এক জিনিস নয়। হেল্পলাইনের সঙ্গে কথা বলার সময়ে সাধারণত সাহায্যপ্রার্থীর নাম গোপন রাখার প্রথা রয়েছে এবং তার দেওয়া তথ্যও বাইরে প্রকাশ করা হয় না। তবে কোনও কারণে যদি দু'পক্ষের মধ্যে চুক্তি ভেঙে যায়, তাহলে গোপনীয়তা রক্ষা করা সম্ভব হয় না। এই জন্য সাহায্যপ্রার্থীর উচিত যে কোনও হেল্পলাইনে ফোন করার আগে তার সঙ্গে তথ্য গোপন রাখার বিষয়ে চুক্তিবদ্ধ হতে।

আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন।      

 

 

Was this helpful for you?