সামনে পরীক্ষা, চাই স্থির লক্ষ্য
শিক্ষা

সামনে পরীক্ষা, চাই স্থির লক্ষ্য

হোয়াইট সোয়ান ফাউন্ডেশন

''এত পড়া, আমি কি সময় মতো সব পড়া শেষ করতে পারব'', অথবা ''যতবারই আমি পরীক্ষার সিলেবাসের দিকে তাকাচ্ছি, ততবারই যেন আমার মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ার উপক্রম হচ্ছে''— পরীক্ষার আগে অধিকাংশ ছাত্র-ছাত্রীর মনে এইসব ভাবনা-চিন্তা হামেশাই আসে। পরীক্ষার সিলেবাস দেখে অনেক ছাত্র-ছাত্রীই পড়াশোনার ক্ষেত্রে গড়িমসি করতে শুরু করে। এইসব সমস্যা দূর করার জন্য পড়ুয়াদের উচিত পরীক্ষার প্রস্তুতির ক্ষেত্রে লক্ষ্য স্থির করা এবং পড়ার বিভিন্ন বিষয়গুলিকে ক্রমান্বয়ে ভাগ করে নিয়ে লেখাপড়া শুরু করা। এইভাবেই পড়ুয়ারা পরীক্ষার ফলাফলের ক্ষেত্রে নিজের লক্ষ্যপূরণ করতে সফল হবে এবং পরীক্ষাজনিত ভয় বা মানসিক উদ্বেগ কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবে।

পরীক্ষার আগে শিক্ষার্থীরা কেন নিজেদের লক্ষ্য স্থির করবে?

এই বিষয়টি অনেকটা পাহাড়ের শিখর ছোঁয়ার সঙ্গে তুলনীয়। পাহাড়ের বিরাট উচ্চতার সামনে দাঁড়িয়ে মানুষের মনে ভয় জাগে এবং পাহাড়ে ওঠার প্রশ্নে সে দিশাহারা বোধ করে। কিন্তু যদি কেউ একবার সিদ্ধান্ত নেয় যে, সে পাহাড়ের শিখরে পৌঁছবে, সে ক্ষেত্রে প্রথমেই তার প্রয়োজন পরিকল্পনামাফিক নিজের লক্ষ্য স্থির করা। তারপর তার উচিত ধাপে ধাপে পরিকল্পনার বাস্তব প্রতিফলন ঘটানোর জন্য নির্দিষ্ট পদক্ষেপ করা। যদি কোনও ব্যক্তি এই পদ্ধতি অবলম্বন করে পাহাড়ে উঠতে সফল হয়, তাহলে তার মধ্যে যে আনন্দ এবং সন্তুষ্টি দেখা যাবে, তা সত্যিই অভাবনীয়। ঠিক এইভাবেই পরীক্ষায় ভালো ফল করার বিষয়টিকে বিচার করা যেতে পারে। যদি কোনও ছাত্র বা ছাত্রীর ক্ষেত্রে পরীক্ষায় পাশ করাটা খুব শক্ত বিষয় বলে মনে হয়, তাহলে পাহাড়ে চড়ার মতো করেই তাকে প্রথমে পরিকল্পনা এবং পরে নিজের লক্ষ্যের দিকে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাওয়া জরুরি। এর ফলে নিজের লক্ষ্যপূরণ অনেকটাই সহজ হয়।

লক্ষ্যের ধরনগুলি হল—

একজন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় কেমন ফলাফল করতে চায়, তার উপর নির্ভর করে সেই পড়ুয়াকে পরীক্ষার প্রস্তুতি এবং ভালোভাবে পরীক্ষা দেওয়ার জন্য নানাপ্রকার লক্ষ্য স্থির করতে হবে। লক্ষ্য মূলত দু'ধরনের হয়ে থাকে, যেমন—দীর্ঘমেয়াদি
এবং স্বল্পমেয়াদি।

দীর্ঘমেয়াদি লক্ষ্যগুলি হল—

  • ছাত্র-ছাত্রীদের নিজেদের পছন্দের কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করার সুযোগ এবং যোগ্যতা অর্জন করা

  • বছরের শেষে লেখাপড়ার নির্দিষ্ট বিষয়গুলির ক্ষেত্রে সফলভাবে জ্ঞান
    লাভ করা

  • সুষ্ঠভাবে পরীক্ষা দেওয়া এবং প্রশ্নগুলির উত্তর যথাযথ লেখা

স্বল্পমেয়াদি লক্ষ্যগুলি হল— একজন শিক্ষার্থীর পক্ষে তার জীবনের বড় লক্ষ্যগুলি পূরণের জন্য আগে ছোট লক্ষ্যগুলি পূরণ করা জরুরি। যেমন—

  • পছন্দের কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য নির্দিষ্ট ন্যূনতম নম্বর পাওয়া

  • ভালো নম্বর নিয়ে কোর্স শেষ করা

  • মনোযোগ সহকারে পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়া এবং পুরো সিলেবাস খুঁটিয়ে পড়া

সংক্ষিপ্ত লক্ষ্যঃ এই লক্ষ্যপূরণের জন্য একটা দিন বা এক সপ্তাহ অথবা এক মাস সময় ধার্য করা হয়ে থাকে। ছোট ছোট লক্ষ্যগুলি পূরণের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের জীবনের স্বল্পমেয়াদি লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য পূরণের দিকে এগিয়ে যায়। বড় এবং কঠিন বাধা সফলভাবে অতিক্রম করার আগে এই ধরনের ছোট ছোট বাধাগুলি পার করা খুবই কার্যকরী হয়ে থাকে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় যে—

  • নির্দিষ্ট সময় অন্তর সিলেবাসের বিভিন্ন বিষয়গুলি ভাগ করে নিয়ে পড়া   

  • প্রতিটি বিষয়ের অর্ন্তভুক্ত নির্বাচিত কিছু অধ্যায়কে বারবার ঝালিয়ে নেওয়া

  • প্রতিদিন নিয়ম করে পড়তে বসা

কীভাবে একজন ছাত্র বা ছাত্রী নিজের লক্ষ্য স্থির করবে?

প্রত্যেক শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রেই শেখার ও পড়ার ধরন আলাদা হয়। যদি কোনও পড়ুয়ার কাছে পাঠক্রম শেষ করা খুব কঠিন বলে মনে হয়, তাহলে তা শেষ করার জন্য ছোট ছোট ভাগ করে নিয়ে পড়া জরুরি। পরীক্ষার জন্য লক্ষ্য স্থির করা এবং সেই লক্ষ্য পূরণ করা কতগুলি বিষয়ের উপর নির্ভরশীল—

  • পরীক্ষার সঠিক প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য উপযুক্ত সময় হাতে থাকা দরকার

  • পড়ার পদ্ধতি ও পরিকল্পনা করার জন্য প্রয়োজন সঠিক সময়ের

  • লক্ষ্যগুলিকে কয়েকটি নির্দিষ্ট ভাগে ভাগ করতে হবে। সেগুলি যাতে যথাযথ, বাস্তবসম্মত এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পূরণ করা যায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে

  • লক্ষ্য পূরণের জন্য সঠিক দিশা এবং আত্মবিশ্বাস অর্জন করা একান্ত জরুরি

এমনভাবে পড়ুয়াদের নিজেদের জীবনের লক্ষ্য স্থির করা প্রয়োজন, যাতে কিছু সময়ের জন্য তারা সামাজিকতা রক্ষা এবং মনের আনন্দ উপলব্ধি করার সুযোগ পায়। লক্ষ্যগুলি যাতে নমনীয় হয় সেদিকে নজর রাখতে হবে। যদি কোনও কারণে একজন ছাত্র বা ছাত্রী একদিন পড়তে বসতে না পারে, তাহলে পরের দিন সেই পড়া তাকে অবশ্যই সম্পূর্ণ করতে হবে।

সূত্রঃ

Cottrell, S. (1999), The Study Skills Handbook, Palgrave Macmillan.

Schunk, D.H. (2000). Learning theories: An educational perspective. Upper Saddle River, NJ: Prentice-Hall.

Zimmerman, B. J. (1998). Academic studying and the development of personal skill: A self-regulatory perspective. Educational Psychologist, 33, 73-86.

হোয়াইট সোয়ান ফাউন্ডেশন
bengali.whiteswanfoundation.org