খাদ্যবিকার বনাম দৈহিক ভাবমূর্তি

খাদ্যবিকার বনাম দৈহিক ভাবমূর্তি

আমরা সবাই আমাদের বাহ্যিক সত্ত্বা নিয়ে নির্দিষ্টভাবে চিন্তাভাবনা করে থাকি। যখন আমরা নিজেদের সুন্দর বলে ভাবি তখন আমাদের মধ্যে ইতিবাচক মনোভাব ফুটে ওঠে। অথবা যখন আমরা নিজেদের খুব বেঁটে, খুব লম্বা, খুব কালো, খুব মোটা ইত্যাদি বলে ভাবতে থাকি তখন আমাদের মধ্যে নেতিবাচক মানসিকতার জন্ম হয়। এই নেতিবাচক দৈহিক ভাবমূর্তিজনিত চিন্তাভাবনা আমাদের আত্মনির্ভরতায় আঘাত করে এবং এর ফলে আমাদের মধ্যে নানারকম অনুভূতিগত বা আবেগজনিত সমস্যা দেখা দেয়।

খাদ্যবিকার একধরনের গুরুতর মানসিক অসুস্থতা এবং তা দূর করার জন্য চিকিৎসা জরুরি। মানুষের মধ্যে খাদ্যবিকার দেখা দেওয়ার পিছনে রয়েছে বিভিন্ন মানসিক, সামাজিক এবং আচরণের প্রভাব। যদিও অধিকাংশ সময়ে যে কারণে এই সমস্যা দেখা দেয় তা হল মানুষের মধ্যে জেগে ওঠা অতিরিক্ত নিয়ন্ত্রণের বোধ, যার ফলে তাদের জীবনের অন্য ক্ষেত্রগুলি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে। খাদ্যবিকার বিকাশের পিছনে নেতিবাচক দৈহিক ভাবমূর্তির একটা বড় ভূমিকা রয়েছে। কিন্তু এটাই একমাত্র কারণ নয়।

Related Stories

No stories found.
হোয়াইট সোয়ান ফাউন্ডেশন
bengali.whiteswanfoundation.org