পরিবারের বা পরিচর্যাকারীর

পরিবারের বা পরিচর্যাকারীর

Q

প্রিয়জনের যদি কোনও মানসিক অসুস্থতা দেখা দেয়, তাঁকে কি আমি হাসপাতালে ভর্তি নেবার জন্য আবেদন করতে পারি? তিনি যদি রাজি না হন তাহলে কী করব?

A

যদি আপনার প্রিয়জন কোনঅ চিকিৎসা নিতে আগ্রহী না হন তাহলে আপনি নিকটবর্তী জেলা আদালতের ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অনুমতিপত্রের জন্যে আবেদন করতে পারেন। একবার অনুমতি পেয়ে গেলে রোগীকে জোর করে হাসপাতাল বা নার্সিং হোমে ভর্তি করার ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে। (সেকশন ১৯,২০, এম. এইচ. অ্যাক্ট)

Q

অনুমতিপত্র কী?

A

যদি কোনও মানসিক রোগী চিকিৎসার জন্যে হাসপাতালে ভর্তি হতে রাজি না হন তাহলে নিকটবর্তী জেলা আদালতের ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে অনুমতিপত্রের জন্যে আবেদন করা যেতে পারে। রোগীর পরিবারের কোনও সদস্য বা ডাক্তার যে কেউ এর জন্যে আবেদন করতে পারেন। ম্যাজিস্ট্রেট সেই আবেদনের ভিত্তিতে বিচার করবেন যে, আদৌ রোগী কোনও মানসিক রোগে আক্রান্ত কি না এবং সেই রোগের জন্যে মানসিক চিকিৎসা কেন্দ্রে রেখে চিকিৎসা করা প্রয়োজন কি না? রোগীকে সম্পূর্ণ রূপে পর্যবেক্ষণ এবং সমস্ত ডাক্তারি কাগজপত্রের নিরীক্ষণ করার পরই ম্যাজিস্ট্রেট এই ব্যাপারে রায় দেবেন। (সেকশন ২০,২২ এম. এইচ অ্যাক্ট)

Q

আমার সন্তানকে মানসিক চিকিৎসার উদ্দেশ্যে হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছিলাম। এখন ওকে সেখান থেকে বের করতে চাই। কী করব?

A

আপনাকে সবার আগে সংশ্লিষ্ট মনোবিদের কাছে আবেদন করতে হবে। তিনি যদি আপনার সন্তানকে নিশ্চিতরূপে সুস্থ ঘোষণা করেন, তবে রোগীর ডিস্‌চার্জ নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বাধা দেবেন না (সেকশন ১৮, এম. এইচ. অ্যাক্ট)। কিন্ত যদি তিনি মনে করেন যে, আপনার সন্তানের আরও চিকিৎসা প্রয়োজন, তবে তিনি হাসপাতালে রেখে দেবার পরামর্শই দেবেন।

Q

আমার প্রিয়জন ম্যাজিস্ট্রেটের অনুমতি অনুযায়ী বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আমি তাঁকে নিজের কাছে এনে রাখতে চাই। কী করব?

A

আপনাকে সবার আগে সংশ্লিষ্ট মনোবিদের কাছে আবেদন করতে হবে। তিনি সেই আবেদনটির সঙ্গে রোগীর সাস্থ্য সম্পর্কিত মতামত যোগ করে স্থানীয় ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে পাঠাবেন। আপনি রোগীর যথাযথ যত্ন নেবেন এবং তাঁর দ্বারা নিজের এবং পার্শ্ববর্তী কারো কোনও রকম ক্ষয়ক্ষতি হবে না, এই মর্মে আপনাকে একটি বিশেষ চুক্তিপত্রে সই করতে হবে। ম্যাজিস্ট্রেট তাতে সন্তুষ্ট হলে আপনার আবেদন মঞ্জুর করে দেবেন। (সেকশন ৪২, এম. এইচ. অ্যাক্ট)

Related Stories

No stories found.